1. admin@kholahawa24.com : kholahawa :
১ কোটি ‘ফ্যামিলি কার্ড’ নির্ভুল করা প্রয়োজন - খোলা হাওয়া ২৪ অনলাইন
শনিবার, ১৪ মে ২০২২, ১১:৩৭ অপরাহ্ন
ঘোষণাঃ
সম্মানিত পাঠক, স্বাগতম আমাদের খোলাহাওয়া ২৪ অনলাইন নিউজপেপারে। আমাদের ওয়েবসাইটের সংস্কার কাজ চলমান আছে। সাময়িক সমস্যার কারণে আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। দেশ-বিদেশের সর্বশেষ সংবাদ জানতে  আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদান্তেঃ মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম। সম্পাদক ও প্রকাশক, খোলাহাওয়া ২৪ ডট কম।
সংবাদ শিরোনামঃ
গোবিন্দগঞ্জে তালিকাভুক্ত আরও এক ডাকাত গ্রেফতার ঈদ শেষে কর্মস্থলে ফেরা : যাত্রীর চাপে টিকিটের দাম বাড়িয়েছে সুবিধাভোগীরা দুই যুগ পরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী ও শ্যালককে মারপিট গোবিন্দগঞ্জে নেশার আসর: বাঁধা দেওয়ায় হামলা ও মারপিটে শ্লীলতাহানীরচেষ্টাসহ আহত ৪ ভিজিডির চাল নিয়ে গেল ব্যবসায়ী : জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সচিব থানায় সাংবাদিক মোস্তফা কামাল সুমনের জন্মদিন উদযাপন ইসলামী ব্যাংক লি. কালাই শাখার আলোচনা ও ইফতার বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের আয়োজনে ইফতার পরবর্তী প্রতিবাদ সভা রিক্সা শ্রমিক মোজাম্মেল হত্যার প্রতিবাদে সমাবেশ অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে ইট-ভাটায় চাঁদাদাবি: দুই লাখ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

১ কোটি ‘ফ্যামিলি কার্ড’ নির্ভুল করা প্রয়োজন

  • আপডেট করা হয়েছে : মঙ্গলবার, ১ মার্চ, ২০২২, ১২.১৬ পূর্বাহ্ণ
  • ৩৪ বার পড়া হয়েছে

এম.এ ইসলাম:

আসছে রমজান উপলক্ষে দেশে ১ কোটি ‘ফ্যামিলি কার্ড’ এর মাধ্যমে বাজারমূল্যের প্রায় অর্ধেক দামে বিতরণ করা হবে ভোগ্য পণ্য। নিত্য প্রয়োজনীয় চাল-ডাল-আটা-লবণ-তেল-চিনি-পেঁয়াজ থাকছে এ তালিকায়। অঞ্চলভেদে এদের সাথে থাকবে বুট ও খেজুর। ২ কেজি সয়াবিন, ২ কেজি চিনি, ২ কেজি মসুর ও ১ কেজি ছোলা থাকছে রমজান উপলক্ষে। ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকার এ প্যাকেজ প্রথম দফায় দেয়া হবে শব-ই-বরাত থেকে রমজানের প্রথম দিকে। আর দ্বিতীয়বার দেয়া হবে মধ্য রমজান থেকে ঈদের আগেই। এরপর এপ্রিল ও জুলাই মাসে আরও দুই দফায় এ সহায়তা পাবে ফ্যামিলি কার্ডধারীরা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এ খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে টিসিবি। বর্তমানে টিসিবির সব ধরনের সেল পয়েন্টের অতিরিক্ত এই ‘ফ্যামিলি কার্ড’ বিতরণ করা হবে। তবে রমজানে বন্ধ থাকবে টিসিবি ট্রাক সেল। ‘ফ্যামিলি কার্ড’এ প্রাধান্য পাবে করোনাকালীন প্রণোদনা পাওয়া ৩৮ লাখ হত-দরিদ্র এবং এর সাথে যুক্ত হবে আরও ৬২ লাখ নতুন পরিবার। ইতিমধ্যে জেলা ও উপজেলা পর্যায় থেকে একটি চাহিদাপত্র সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানোর শেষ তারিখ ছিল ২০ ফেব্রুয়ারি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক প্রতিটি ফ্যামিলি কার্ড ইস্যু করা হলেও এর সাথে সম্পৃক্ত থাকবেন জনপ্রতিনিধিরাও। ইউনিয়ন পর্যায়ে চেয়ারম্যানরা কমিটির আহবায়ক; প্রথম শ্রেণির এক কর্মকর্তা ট্যাগ অফিসার; এমপিরা কমিটির উপদেষ্টা, পৌরসভার ক্ষেত্রে মেয়রের প্রতিনিধি, সিটিতে মেয়র থাকবেন উপদেষ্টা আর জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধিও থাকবেন এ কমিটিতে। যাচাই-বাছাই ও সার্বিক তদারকিতে থাকা উপজেলা ও জেলা কর্মকর্তারা প্রকৃত হতদরিদ্রদের তালিকা নির্ভুলভাবে তৈরি করবেন। প্রতিটি কার্ড হবে তিন প্রস্ত। উপকারভোগী, ডিলার ও জেলা প্রশাসকের কাছে একটি করে সংরক্ষণ করা হবে। আর পণ্য বিতরণের চারদিন আগেই মাইকিং করে জনসাধারণকে জানিয়ে দেওয়া হবে পণ্য গ্রহণের স্থান ও সময়।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এমন আয়োজনকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন সকলেই। তবে সঠিক উপকারভোগী বাছাই করাটা হবে মূল চ্যালেঞ্জ। কেননা সারাদেশে ইতিপূর্বে ৪৫০টি খোলা ট্রাকে পণ্য বিক্রিকালে লাইনে দাঁড়িয়ে পণ্য সংগ্রহ করতে পারেনি নিম্ন-মধ্য আয়ের মানুষরা। খালি হাতে তাদের ফিরতে হয়েছে। অনেক স্থানে সাংবাদিকদের ক্যামেরা বন্দী হওয়ার আগেই লাইনে শুধু ব্যাগ রেখে পালিয়েছেন মধ্যবিত্তরা।

অপরদিকে বিগত সময়ে কোভিডকালে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঈদ উপহারের ৫০ লাখের তালিকায় মধ্যবিত্ত, পেনশনার, সরকারি চাকরিজীবী, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নাম থাকায় বিতর্কের জন্ম হয়েছিল। যদিও পরে যাচাই বাছাই করে ৩৫ লাখ পরিবারকে সেই নগদ সহায়তা দেওয়া হয়। এছাড়া পরবর্তীতে ৩ লাখের একটি তালিকা নতুন করা হয়। যেখানে স্থান পেয়েছিল সড়ক-নৌ শ্রমিক ও নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা। তারও পরে দেওয়া হয়েছে সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিকদের।

এবারের তালিকায় এমনটা যেন না হয়। সমাজের হত-দরিদ্ররা সরকারের মহৎ এ উদ্যোগের সুবিধা যেন পায়; তা শতভাগ নিশ্চিত করতে হবে। জনপ্রতিনিধি আর কর্মকর্তাদের স্বজন-প্রীতিতে এটি যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয়; এমনটা আশা করে সচেতন মহল। অপরদিকে ভোগ্য পণ্যের বাজারদরের পাগলা ঘোড়াকে নিয়ন্ত্রণে রাখা অত্যাবশ্যকীয় হয়ে পড়েছে। নির্দিষ্ট আয়ের ব্যক্তিদের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাক; দেশ সকল স্তরের নাগরিকরা স্বস্তিতে থাকবে এটাই চাওয়া।

Facebook Comments
image_printPRINT

আমাদের নিউজ শেয়ার করতে নিচের আইকনে ক্লিক করুন

আরো খবর দেখুন
আক্রান্ত

১,৯৫২,৯৭৯

সুস্থ

১,৮৯৯,১৫০

মৃত্যু

২৯,১২৭

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৯৫২,৯৭৯
সুস্থ
১,৮৯৯,১৫০
মৃত্যু
২৯,১২৭
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২২
সুস্থ
৫২০
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১,৯৫২,৯৭৯
সুস্থ
১,৮৯৯,১৫০
মৃত্যু
২৯,১২৭
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৫১৯,০৭২,৫৬২
সুস্থ
মৃত্যু
৬,২৫৭,৪৩৩

আমাদের পাঠকসংখ্যা

  • 0
  • 0
  • 95,768
© All rights reserved © 2020 খোলাহাওয়া ২৪ ডট কম
Theme Design BY MD SABBIR